মেডিটেশন ( meditation) কি ? মেডিটেশনে মধুর জীবন

ব্যস্ত নগর জীবনের সঙ্গে যারা তাল মেলাতে গিয়ে যারা বড় ক্লান্ত, বড় অবসন্ন তাদের জন্যই এই আয়োজন আমাদের। শরীরটা হয়তো তাদের চলছে জীবনের প্রয়োজনে কিন্ত মন যে রোগা হয়ে যাচ্ছে দিন দিন। সুস্থ জীবনের জন্য তাই মনকে বাধতে হবে আগে। মনকে শরীরের বশে আনতে প্রয়োজন মেডিটেশন।

কি এই মেডিটেশন ? ( meditation )

সহজ কথায় একাগ্র মনের কোন চিন্তার নাম meditation। এটি শুধু মনকেই কেন্দ্রীভূত করে জাগিয়ে তোলে না। শরীর যন্ত্রেরও উপকার করে। আর সত্যিকথা বলতে কি, মানুষের শক্তির উৎস হলো মন। মন যখন শান্ত থাকে মানুষ তার মস্তিষ্ককে সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে পারে। আর মনকে স্থির করার সফলতম পদ্ধতি হলো মেডিটেশন(meditation)।

Woman practicing yoga
Woman practicing yoga

মেডিটেশনের পরিবেশ-

কোলাহল থেকে মুক্ত হবে meditation করার স্থান।
সকালে বারান্দার হালকা রোদে করতে পারেন মেডিটেশন।
মেডিটেশনের জন্য বড় ঘর কিংবা ছাদকেও বেছে নিতে পারেন।
হালকা আলো আছে এমন ঘর meditation এর জন্য বেশ ভালো।
meditation  ঘরে হালকা সুগন্ধি ছড়াতে পারেন।
meditation এর জন্য বসার স্থানটি খুব শক্ত হবে না আবার খুব নরমও নয় কিন্তু।
এ সময় মিউজিক প্লেয়ারে বাজাতে পারেন কোনো মিষ্টি মধুর সুর।
সেতার,বেহালা কিংবা শিশিরের শব্দের আওয়াজের আয়োজন থাকতে পারে কৃত্রিম ভাবে।
meditation এর আসন

 

সাধারনত meditation করতে হয় পদ্মাসন, সুখাসন, অর্ধপদ্মাসন, স্বস্তিকা আসনে বসে।
দুই হাত থাকবে দু’ধারে, ধ্যান মুদ্রায়।
কোমর, কাঁধ, মাথা একটি সরল রেখায় থাকবে।
শিথিল করে রাখতে হবে কাঁধ।
এই ভঙ্গিতে বসে কিছুক্ষন অন্য সব চিন্তা দূরে সরিয়ে মনকে কেন্দ্রীভূত করুন।
দুর্বল, অসুস্থ শরীর মেডিটেশনের জন্য উপযোগী নয়। তাই সুস্থ হতে হবে আগে।
বাদ দিতে হবে অতিরিক্ত ভোজন।
প্রয়োজনের অতিরিক্ত ঘুম পরিহার করতে হবে।
কেমন হবে পোষাক

সুতির আরামদায়ক যে কোন পোষাকই মেডিটেশনের জন্য উপযোগী।
পরিষ্কার পাজামা-পাঞ্জাবী পরে করতে পারেন মেডিটেশন।
ট্রাউজার বা ট্রাক স্যুটও চলবে।
যেকোনো ঢিলেঢালা পোষাক পরতে পারেন।
শরীরে যেকোন অলংকার না রাখাই ভালো।
মেডিটেশনের কার্যকারিতা

মনের একাগ্রতা বাড়ে।
স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধিতে সহায়ক।
দেহের কর্মক্ষমতা বাড়ায়।
মনের হতাশা ও অশান্তি দূর করে।
অনিদ্রা থেকেও মুক্তি পাওয়া সম্ভব।
দীর্ঘায়ু লাভ হয়।
মনোকষ্ট দূর হয়।
চিন্তা শক্তির প্রখরতা বাড়ে।
মানসিক চাপ কমায়।
আবেগ, অভিমান দূর হয়।
হৃদরোগেরও উপশম হয় মেডিটেশনে।
মেডিটেশন করলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে।

আপনার স্বাস্থ্য বিষয়ক যে কোন তথ্য পেতে ভিজিট করুন আপনার ডক্টর হেল্থ সাইটটি।ধন্যবাদ

আরো পোস্ট দেখুন

comments