বর্তমান সময়ে অনলাইন উদ্যোক্তা হতে যেই ৫টি গুন আপনার অবশ্যই থাকতে হবে

টাইটেল দেখেই বুঝতে পারছেন আজকের লেখাটি তাদের জন্য যারা অনলাইন উদ্যোক্তা হবার কথা ভাবছেন। লেখাটি গতানুগতিক “কিভাবে হবেন ফ্রীলান্সার ” জাতীয় লেখা নয়। একটু গভীর চিন্তা ভাবনার ব্যাপার আছে। নিজের এক্সপেরিয়েন্স থেকে লিখছি। তাই আপনার যদি কোনো পয়েন্ট সম্পর্কে আরো কিছু যোগ করার থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট এ জানাবেন।
তো দেরী না করে চলুন জেনে নেই, বর্তমান সময়ে অনলাইন উদ্যোক্তা হতে গেলে যেই ৫ টি গুন আপনার মধ্যে অবশ্যই থাকতে হবে.

entrepreneur_0

১. নিজের মুল্য জানুন

অবাক হলেন? হবারই কথা। বর্তমানে আমাদের দেশে এমন অনেক প্রোগ্রামার, ডিজাইনার, অপটিমাইজার আছেন যারা আ

২. চিন্তাকে প্রাধান্য দিন, মন কে নয়

ইদানিং অনেকেই আবেগবশত “ফ্রীলান্সিং” বা “ফ্রীলান্সিং ট্রেনিং সেন্টার ” খুলে বসেন। আপনি যদি অনলাইন এ ভালো সুনাম অর্জন করতে চান তাহলে মনের আবেগে কিংবা দ্রুত টাকা আয়ের জন্যে অন্যকে শেখানো শুরু করবেন না। এতে আপনার ক্ষতি হবে আর যাকে শেখাচ্ছেন তারও ক্ষতি হবে। আগে নিজে শিখুন এবং লক্ষ্য স্থির করুন। ট্রেনিং সেন্টার ছাড়াও সার্ভিস সেল করেও আপনি একজন অনলাইন উদ্যোগতা হতে পারেন।
আপনি যদি উদ্যোগতা হতে চান তাহলে নিজের কাজের প্রতি আরো বেশি মনোযোগী হন। এতে করে আপনার কাজের স্কিল বাড়বে এবং আপনি আরো অনেককে কাজের সুযোগ তৈরী করে দিতে পারবেন। যারা শেখার চেষ্টা এবং নিজের কাজ বাদ দিয়ে অন্যকে শেখানোর জন্য ব্যস্ত হয়ে গেছেন তাদের অধিকাংশই মার্কেট এ টিকতে পারেননি, আর যারা শিখেছেন তাদের অবস্থা নাই ই বললাম। আপনি যদি আসলেই সফল হতে চান তাহলে অনবরত শেখায় মনোনিবেশ করুন। আইটি সেক্টর এমন একটি সেক্টর যেখানে প্রতিদিন ই নিত্য নতুন আপডেট আসছে। আপনাকে প্রতিযোগিতায় থাকতে হলে অবশ্যই নতুন বিষয় গুলোর ব্যাপারে আপডেট থাকতে হবে, না হলে আপনি ঝরে পড়বেন।
তাই যাই করার কথা ভাবছেন, একটু ভেবে করুন।

৩. ধৈর্যশীল হন

সকল ব্যবসার মত অনলাইন সেক্টর এও ধৈর্যশীলতা খুবই খুবই জরুরি। এখানে আপনি কাজ করবেন এবং উন্নতি করবেন শুধু মাত্র আপনার দক্ষতার উপর ভিত্তি করে। তাই যতক্ষন না আপনি দক্ষ হতে পারছেন ততক্ষন আপনাকে লেগে থাকতে হবে। যদি সেই ধৈর্য আপনার না থাকে তাহলে আপনার অন্য কোনো ব্যবসায়িক মডেল এ মননিবেশ করা উচিত।

সলেই নিজের কাজের ভ্যালু জানেন না। কেউ কেউ বাইরের ক্লায়েন্ট এর থেকে পাওয়া অল্পরেটের প্রস্তাবেই কাজ করতে রাজি হয়ে যান। অনেকে এ ক্ষেত্রে কাজের স্বল্পতা বা অর্থের অভাবকে কারন হিসেবে উল্লেখ করেন। কিন্তু আপনি যদি আদৌ কষ্ট করে কোনো কিছু শিখে থাকেন আর আপনি যদি সময়ের সঠিক মুল্য দিতে জানেন তাহলে অবশ্যই কম রেট এ কাজ করতে গেলে আপনার বিবেকে আপনাকে বাধা দিবে। তাই আপনি যদি অনলাইন একজন উদ্যোগতা হতে চান তাহলে আগে নিজের কাজেকে ভ্যালু দেয়া শিখুন। না হয় আপনার নিজের প্রতিষ্ঠান চালানো আপনার জন্য কষ্টকর হয়ে যাবে।

৪. সর্বোত্তম এ বিশ্বাস করুন

স্টিভ জবসকে তো আমরা সবাই ই চিনি। যার কারনে Apple হয়েছিল আমেরিকান স্টক মার্কেট এর সব থেকে দামী প্রতিষ্ঠান। জবস কখনো মোটামোটিতে বিশ্বাসী ছিলেন না। তিনি সর্বোত্তম এ বিশ্বাস করতেন। তার এই এক গুয়েমির কারনে তাকে Apple এর থেকে সরিয়েও দেয়া হয়ে ছিল। পরবর্তীতে Apple এর যে কি দূর অবস্থা হয় সেটা আমরা কম বেশী সবাই ই জানি।
কিন্তু তিনি যখন আবার ফিরে এলেন তখন কোম্পানির অবস্থাটাই পাল্টে গেল। ২ বছরের মাথায় যেই Apple স্টক মার্কেট এ কোনো অবস্থানই ছিলনা না সেটা হয়ে গেল স্টক মার্কেট এর সব থেকে দামী কোম্পানি। ভেবে দেখুন না, এখনো একজন আইফোন ব্যবহারকারী বা একজন ম্যাকবুক ব্যবহারকারী তার ডিভাইসটা নিয়ে যেই পরিমান গর্ব অনুভব করে, তেমনটা অন্য কোনো ব্র্যান্ড ব্যবহারকারীরা কখনই করবে না। তাই সর্বোত্তম এ বিশ্বাস করুন।
সবসময় সর্বোত্তমদের সাথে কাজ করার চেষ্টা করুন, আর সর্বোত্তম হবার চেষ্টা করুন। খ্যাতি এবং সুনাম আসবেই।
** যারা সব সময় সব থেকে ভালো করার চেষ্টা করেন, তাদের সাথে কাজ করাটা একটু কঠিন।কারন তাদের সহজে খুশি করা যায় না। তাই সেরা হতে হলে একটু কষ্ট আপনাকেও করতে হবে।

৫. হিসাবী হয়ে উঠুন

অনেকের মতে অনলাইন এ খুব সহজেই এবং খুবই কম খরচেই ব্যবসা শুরু করা যায়। কথাটা একদম ই ভুল। সব সেক্টর এর মত, এই সেক্টর এও কম বেশি মূলধন এর দরকার হয়। আর সব সেক্টর এর মত এখানেও “সস্তার তিন অবস্থা কথাটা খুবই সত্য “। তাই আপনি যদি সিরিয়াসলি কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই ভালো কর্মী গঠনে, ভালো ওয়েবসাইট তৈরীতে এবং ভালো লাভ হয় এমন অনলাইন বিজ্ঞাপনে খরচ করতে হবে। তাই, আপনি যদি একজন অনলাইন উদ্যোক্তা হবার চিন্তা করে থাকেন তাহলে আজ থেকেই হিসাবী হয়ে উঠুন। অর্থ এবং সময়, দুই দিক থেকেই। তাহলেই আপনি সফলতা অর্জন করতে পারবেন।

আপনার কি মতামত ?

আজকে এই পর্যন্তই। আপনি কি ভাবছেন? আপনার পরিকল্পনা কি ? চাইলে আমাদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। আমরা আমাদের এক্সপেরিয়েন্স থেকে যতটুকু সম্ভব আপনাকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করব। ভালো লেগে থাকলে লেখাটি শেয়ার করুন।
পরবর্তী লেখা পর্যন্ত সঙ্গে থাকুন।

লিখেছেনঃSahadat Rousho, Internet Entrepreneur

পূর্বে প্রকাশিত হয়েছেঃ সাথেই থাকুন ডট কম এ

আরো পোস্ট দেখুন

comments