ম্যাকবুক এয়ার ১২ (২০১৫) Vs মাইক্রোসফট সার্ফেস প্রো ৩

অ্যাপেল এর ম্যাকবুক এয়ার ১২ (২০১৫) এবং মাইক্রোসফট এর সার্ফেস প্রো ৩ প্রযুক্তি বাজারে একই সঙ্গে সারা ফেলেছে । এই দুটো ডিভাইসেই রয়েছে অসাধারন সব ফিচার । বাজারে দুটো ডিভাইসের একসাথে আগমন এবং প্রায় কাছাকাছি কনফিগারেশনের হওয়ায় ক্রেতাদের মনে কিছুনা দ্বিধাদ্বন্দ্বের সৃষ্টি করেছে । তাই আজকের টিউনে আমি এই দুটো ডিভাইসের কনফিগারেশনের পার্থক্য গুলো তুলে ধরবো । আশা করি যারা ম্যাকবুক এয়ার ১২ (২০১৫) এবং মাইক্রোসফট সার্ফেস প্রো ৩ কেনার চিন্তা করেছেন তাদের জন্য টিউনটি সহায়ক হবে ।

 

সাইজ

1

ডিভাইস দুটোর আকার প্রায় কাছাকাছি হলেও, উচ্চাতা এবং প্রসস্থের দিক দিয়ে সার্ফেস প্রো ৩ ম্যাকবুক এয়ার ১২ থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে ।

ওজন

2

কীবোর্ডসহ সার্ফেস প্রো ম্যাকবুক থেকে কিছুটা ভারি এবং কীবোর্ড ছাড়া কিছুটা ওজনে হালকা ।

গঠন

3

দুটো ডিভাইসই ইউনিক ডিজাইনের হলেও ম্যাকবুকে রয়েছে অ্যালুমিনিয়ামের বডি এবং সার্ফেস প্রো তে ম্যাগনেসিয়ামের বডি ।

কালার

4

ম্যাকবুক গ্রে, গোল্ড এবং সিলভার কালারে আসলেও সার্ফেস প্রো পাওয়া যাবে শুধু সিলভার কালারে ।

ডিসপ্লে সাইজ

5

ডিসপ্লে সাইজ প্রায় কাছাকাছি হলেও ম্যাকবুক থেকে সার্ফেস প্রো ৩% বেশি বড় ।

ডিসপ্লে রেজুলেশন

6

রেজুলেশন এবং পিক্সেল ডেনসিটিতে ম্যাকবুক কিছুটা এগিয়ে রয়েছে সার্ফেস প্রো থেকে ।

ডিসপ্লে টাইপ

7

দুটো ডিভাইসেরই ডিসপ্লে আইপিএস ।

টাচ স্ক্রিন এবং ট্যাবলেট মোড

8

টাচ স্ক্রিন এবং ট্যাবলেট মোড শুধু সার্ফেস প্রো তেই রয়েছে যা ম্যাকবুকে নেই ।

টাচ পেন ইনপুট

9

ম্যাকবুকে টাচ স্ক্রিন না থাকায় শুধু সার্ফেস প্রো তে টাচ পেনের সাহায্যে বিভিন্ন কাজ সহজেই করা যাবে ।

ট্রাকপ্যাড ম্যাটেরিয়াল

10

সার্ফেস প্রো থেকে ম্যাকবুকের কীবোর্ড প্যানেল বেশ বড় এবং এতে গ্লাস কভারিং করা আছে ।

ডাটা স্টোরেজ

12

ম্যাকবুক শুধু ২৫৬ এবং ৫১২ জিবিতে পাওয়া গেলেও সার্ফেস প্রো পাওয়া যাবে ৬৪, ১২৮, ২৫৬ এবং ৫১২ জিবিতে ।

মাইক্রো এসডি কার্ড স্লট

13

সার্ফেস প্রো তে মাইক্রো এসডি কার্ড সাপোর্ট করলেও ম্যাকবুকে সেই ব্যবস্থা নেই ।

ইউএসবি পোর্ট

14

ম্যাকবুকে ইউএসবি পোর্ট টাইপ সি তে পরিবর্তন করায় অপটিক্যাল ডিভাইস কানেক্ট করাতে হলে আলাদা আডেপ্টার প্রয়োজন হবে ।

ব্যাটারি

15

ম্যাকবুকে ব্যাটারি ব্যাকআপ ১০-১২ ঘন্টা পাওয়া গেলেও সার্ফেস প্রো তে পাওয়া যাবে ৭-৯ ঘন্টা ।

ক্যামেরা

16

ম্যাকবুকের ক্যামেরায় রেজুলেশন কম হলেও সার্ফেস প্রো তে সামনে ও পিছনে ৫ মেগাপিক্সেল করে ক্যামেরা রয়েছে ।

প্রসেসর

17

ম্যাকবুক এর তুলনায় সার্ফেস প্রো তে ব্যবহার করা হয়েছে বেশ দ্রুত গতির প্রসেসর ।

গ্রাফিক্স

18

গ্রাফিক্সের দিক দিয়ে সার্ফেস প্রো থেকে ম্যাকবুক বেশ এগিয়ে রয়েছে ।

র‍্যম

19

ম্যাকবুক শুধু ৮ জিবি র‍্যমের হলেও সার্ফেস প্রো পাওয়া যাবে ৪ জিবি এবং ৮ জিবি র‍্যমে ।

অপারেটিং সিস্টেম

20

 

সার্ফেস প্রো তে থাকছে উইন্ডোজ ৮.১ এবং ফ্রি ভাবে উইন্ডোজ ১০ এ আপডেট করা যাবে এবং ম্যাকবুকে থাকছে ওএস এক্স ।

আজ এই পর্যন্তই । পরবর্তি আবারও হাজির হবো প্রযুক্তি বিষয়ক আরও অনেক তথ্য নিয়ে । আর হ্যাঁ টিউন কেমন হয়েছে জানাতে ভুলবেন না, আপনাদের উৎসাহই আরও ভালো টিউন উপহার দেয়ার অনুপ্রেরণা যোগাবে । ফেসবুকে আমি

আরো পোস্ট দেখুন

comments