ভারতের ড্রেসিং রুমে বিবাদ!

dhoniandkholi

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গত তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ হারের পর ভারতের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির ব্যক্তিগত কোচই তুলেছেন কথাটা। দলের অন্যতম সদস্য ও টেস্ট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি যেন হাটে হাড়ি ভেঙে জানিয়ে দিলেন ওই কথাটাই সত্য।

কথাটা কী? ভারতীয় ক্রিকেট দলে ছড়িয়ে পড়েছে বিবাদের আগুন। ড্রেসিং রুমটাই যেখানে বিবাদের আখড়া, সেখানে মাঠে ভালো খেলার মানসিকতা থাকে?

গত সোমবার ভারতীয় সংবাদ চ্যানেল আইবিএনে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ধোনির ব্যক্তিগত কোচ চঞ্চল ভট্টাচার্য বলেন, ‘ড্রেসিংরুমের পরিবেশটা ধোনির অনুকূলে নেই। সে যেভাবে চায় সেভাবে নেই। ড্রেসিংরুমের কারণে ধোনির মন শান্ত নেই। আর এরই প্রভাব পড়ছে মাঠে।’

চঞ্চল ভট্টাচার্য আরো বলেন, ‘ড্রেসিং রুমের পরিবেশ নিয়ে ধোনি টেনশনে আছে।’

ওই আইবিএন চ্যানেলেই আজ বুধবার সিরিজের শেষ ম্যাচের দিন প্রচারিত সংবাদে বলা হয়েছে, ভারতীয় দলের এ অবস্থার জন্য ‘ড্রেসিংরুমের বিবাদ’কে দায়ী করেছেন বিরাট কোহলি।

আর এ ব্যাপারে অধিনায়ক ধোনিকে দায়ী করেছেন কোহলি। ওই সংবাদে বলা হয়, ঢাকার মাঠে ব্যর্থতার জন্য অধিনায়কের সিদ্ধান্তগুলোকে দায়ী করেছেন কোহলি। কোহলি বলেছেন, ‘আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত নিয়ে সন্দিহান ছিলাম, আর তার প্রতিফলন মাঠে দেখা গেছে। ক্রিকেটাররা নিজেদের যথাযথভাবে প্রকাশ করতে পারছেন না।’

মহেন্দ্র সিং ধোনি ভারতের টেস্ট ও ওয়ানডে দুই ধারাতেই অধিনায়ক ছিলেন। গত বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আগে অস্ট্রেলিয়া সফরে টেস্ট অধিনায়কের পদ ছেড়ে দেন ধোনি। তার পরই বিরাট কোহলির হাতে টেস্ট দলের নেতৃত্ব চলে আসে।

এরপর থেকে দুই ধারার দুই অধিনায়ক হিসেবে তাঁরা কাজ করছেন।

বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে পরাজিত হয়ে বিদায় নেয় ভারত। চলতি মাসে বাংলাদেশ সফরে এসে একটি টেস্ট খেলে যা বৃষ্টির কারণে ড্র হয়ে যায়। আর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশের কাছে পরপর দুই ম্যাচে হেরে গিয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের কাছে সিরিজ হেরে যায় ধোনির দল।

সোর্সঃ এনটিভি অনলাইন

আরো পোস্ট দেখুন

comments