বাংলাদেশের প্রথম মার্কেটপ্লেস বিল্যান্সারের সাথে ব্র্যানোর আউটসোর্স বিষয়ক চুক্তি

Belancer_300415

দেশি মার্কেটপ্লেস হিসেব বিল্যান্সারের ( www.belancer.com ) নাম ইতিমধ্যে সকলেরই জানা হয়ে গেছে। এটি বাংলাদেশের বাংলাদেশী মার্কেটপ্লেস হিসেবে ইতিমধ্যে পদার্পণ করে ফেলেছে।  কারিগরিসহ নানাদিক চূড়ান্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর এটি বাণিজ্যিকভাবে শুরু করা হয়েছে। ফলে এতোদিন যারা অন্যের মার্কেটপ্লেসে নিজেদের কাজ তুলেছেন তারা গর্বভরেই স্বদেশি এই মার্কেটপ্লেসে নতুন দিগন্তের দেখা পেতে পারেন। আর গুণে-মানে ধীরে ধীরে এ মার্কেটপ্লেস ওডেক্স-ইল্যান্স, ফ্রিল্যান্সার, ভিওয়ার্কার, ইনভাটো স্টুডিও, পিপলপারআওয়ার, মিডিয়াবিস্ট্রো, গুরু, পর্য, টপকোডারের মতো আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডগুলোর যোগ্য হয়ে উঠবে বলেই জানিয়েছেন এরসাথে সংশ্লিষ্টরা। থাকছে ঝামেলাহীন পেইমেন্ট ব্যবস্থাসহ চলমান কোম্পানিগুলোর প্রায় সব সুবিধাই।

বাংলাদেশের এই মুহূর্তে অন্যতম জনপ্রিয় ই-কমারস সাইট হচ্ছে ব্র্যানো ডট কম ( www.branooo.com )। ব্র্যানো ডট কম এর মাধ্যমে ঘরে বসে আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্য ক্রয় করা যায়। গ্রাহক চাহিদার কথা মাথায় রেখে প্রতিষ্ঠানটি গুণগত মানসম্পন্ন বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের পন্য বাজারজাত করে আসছে । প্রতিষ্ঠানটি সরাসরি দুবাই থেকে নামীদামী সব ব্র্যান্ডের আসল প্রসাধনী পণ্য আমদানি করে অনলাইনে বিক্রি করে থাকে। আন্তর্জাতিক বাজারে জনপ্রিয় সব প্রসাধনী সামগ্রীর সম্ভার নিয়ে দারুণ গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। সেইসাথে নিয়মিত বিরতিতে যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন সব প্রোডাক্ট ক্যাটেগরি।

বিল্যান্সারের সাথে ব্র্যানোর আউটসোর্স বিষয়ক একটি চুক্তি গতকাল সাক্ষরিত হয়েছে। এই চুক্তির মাধ্যমে এখন থেকে ব্র্যানো তার আউটসোর্স করা সকল কাজই বিল্যান্সারের মাধ্যমে করানো হবে। দেশের মার্কেটপ্লেস যাতে খুব সহজেই এগিয়ে যায় এবং খুব সহজেই সাফল্যের মুখ দেখতে পারে এই কারনে ব্র্যানোর সাথে এই চুক্তি।

এই বিষয়ে ব্র্যানোর প্রধান রাজীব রায় জানান, “এটি বিশাল একটি উদ্যোগ। এই ধরণের মার্কেটপ্লেস এই মুহূর্তে সময়ের চাহিদা। এটি যত তাড়াতাড়ি এগিয়ে যাবে, তত তাড়াতাড়ি দেশের আইটি খাতও এগিয়ে যাবে। দেশে বেকারত্তের চাহিদা ঘুচবে। আমাদেরকে আর বিদেশী প্লাটফর্মের উপর নির্ভর করতে হবে না। দেশেই যত কাজ আছে, তা দিয়েই খুব সহজেই এগিয়ে যেতে পারবে বিল্যান্সার। সেই সাথে ধীরে ধীরে বিদেশী প্রতিষ্ঠানগুলোও এগিয়ে আসবে। এই কারণে এই মুহূর্তে যেটা দরকার সেটা হল দেশিয় প্রতিস্থানগুলোকে এগিয়ে আসা। আশা করছি দেশের বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোও ব্র্যানোর মতন এগিয়ে আসবে এবং বিল্যান্সারকে এগিয়ে যেতে সহযোগিতা করবে”।

মার্কেটপ্লেসটি নিয়ে কাজ করা এর প্রধান শফিউল আলম জানান, “দীর্ঘ সময় ধরে নানা প্রতিকূলতার মধ্যে একটু একটু করে এর কাজ করা হয়েছে। কিন্তু ফ্রিল্যান্সার মার্কেটপ্লেসের মতো এতো বড় একটি প্লাটফর্মের যে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ তা শেষ করে এগিয়ে যেতে হলে আমাদের অবশ্যই দেশিয় কোম্পানির সহযোগিতা আবশ্যক। আমিও আশাবাদী ব্র্যানোর মতন বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোও এগিয়ে আসবে এবং তারাও তাদের কাজগুলো আমাদের এই মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে দিয়ে আমাদের এগিয়ে নিয়ে যাবে। বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সারদের জন্য এই মার্কেটপ্লেস নিয়ে অনেক বড় কিছু করা সম্ভব”।
বেকারত্ত ঘুচিয়ে ঠিক এভাবেই এগিয়ে যাক আমাদের দেশ, এই কামনা করছি আমরা।

আরো পোস্ট দেখুন

comments