নিরাপদ ইন্টারনেট ব্যবহার ছড়িয়ে দিন সবার মাঝে

বিজ্ঞানের বিষ্ময়কর আবিষ্কার ইন্টারনেট পুরো বিশ্বটাকে আমাদের মুঠোয় পুরে দিয়েছে। জ্ঞান অন্বেশনের আশায় আমরা ইন্টার্নেট তুলে দিচ্ছি আমাদের  ছোট ভাই-বোন কোমলমতি শিশু-কিশোরদের হাতে। অন্তরে স্বপ্নের বীজবপন করছি একটি তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর আগামী প্রজন্মের। কিন্তু সাইবার ক্রাইম রিপোর্টগুলো আমাদের অশনি সংকেত শোনাচ্ছে। তথ্য-প্রযুক্তির এই যুগে ইন্টারনেট যেমন পৃথিবীকে এনে দিয়েছে হাতের মুঠোয় তেমনই অশ্লীল, কুরুচিকর, হ্যাকিং,  অস্ত্র প্রদর্শনী, ড্রাগ, ক্ষতিকারক তথ্য ছবি ইত্যাদি সহজলভ্য করেছে । আমরা কি খোঁজ নিয়ে দেখেছি জ্ঞান অন্বেশনের বদলে তারা কোথায় ডুবে আছে ? তাই ইন্টারনেটের ব্যবহার নিয়ন্ত্রিত হওয়া উচিৎ। কিন্তু কোটি কোটি ওয়েব সাইটের ভিড়ে এ ধরণের মন্দ ওয়েব সাইটগুলো বন্ধ করা অসম্ভব । কিন্তু তা সম্ভব ; বেশ কয়েকটি ওয়েব ফিল্টারিং সফটওয়ার দিয়ে ব্যক্তিগত কম্পিউটার বা এক নেটওয়ার্কভুক্ত একাধিক কম্পিউটারে ইন্টার্নেট এ্যাক্সেসে নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা সম্ভব। আর সবচেয়ে যে সফটওয়্যারটির শক্তিশালী অপশন নিয়ন্ত্রণকে আরো সুচারুরূপে আরোপ করতে সাহায্য করে তার নাম হল K9 Web protection. যা ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে একজন অভিভাবকের দায়িত্ব পালন করবে ।

নিন্মে সফটওয়ারটির পূনাঙ্গ ব্যবহারবিধি সচিত্র আলোকপাত করা হল ।

 

চিত্রঃ ১

সর্বপ্রথম এখানে ক্লিক করে ওয়েবসাইট খুলুন। ডান পাশে উপরে Download FOR FREE তে ক্লিক করুন । (চিত্রঃ ১)

চিত্রঃ ২

২য় পেইজ  আসবে ওখানে আপনার নাম ইমেইল ঠিকানা সহ অন্যান্য তথ্য পূরণ করুন (চিত্রঃ ২)

চিত্রঃ ৩

এর পর আপনার দেয়া ইমেইল ঠিকানায় K9 Web Team থেকে একটা মেইল পাবেন মেইলটা খুললে K9 web protection ডাউনলোড করার লিংক পাবেন এবং সাথে একটি পার্সওয়াড পাবেন । (চিত্রঃ ৩)

চিত্রঃ ৪

আপনার OS এর সাথে সংগতিপূর্ণ K9 web protection ডাউনলোড করুন । ডাউনলোড শেষে ইন্সটলেশন শুরু করার পর  (চিত্রঃ ৪) এর মত আপনার কছে লাইসেন্স কি চাওয়া হবে। সেখানে ই-মেইলে পাওয়া পাসওয়ার্ডটি লিখে দিন ।

চিত্রঃ ৫

এবার ২য় ধাপে এ্যাডমিন পাসওয়ার্ড দিন। এটা পরবর্তীতে সফটওয়্যারটি খুলতে,  অপশন পরিবর্তন করতে, আনইনস্টল করতে অথবা যেকোনো রকম নিয়ন্ত্রণ করতে প্রয়োজন হবে। (চিত্রঃ ৫)

চিত্রঃ ৬

ইন্সটলেশন শেষে ‘রিস্টার্ট’ করুন (চিত্রঃ ৬)
এবার শেষ হলো K9 web protection আপনার পিসিতে ইন্সটলেশন শেষ হল ।

ব্যবহারবিধি :

চিত্রঃ ৭

আপনার ডেস্কটপ থেকে K9 web protection সফটওয়্যারটি ওপেন করুন। উল্লেখ্য সফটঅয়ারটি সব সময় আপনার ব্রাউজারের মাধ্যমে খুলবে । (চিত্রঃ ৭) এর লাল রঙ চিহ্নিত মাঝখানের বক্সে Setup এ ক্লিক করলে সেটআপের সময় দেওয়া যে পাসওয়ার্ড দিয়েছিলেন, তা দিন। এখন K9 web protection এর প্রধান অংশে প্রবেশ করেছেন ।

এখান থেকেই আপনি ইন্টারনেট ব্রাউজিং কল্ট্রোল করবেন । নিন্মে তা বিস্তারিত অবলোকন করছি । Set up-এ আটটি অপশন আছে তা হল: 1. Web Categories to Block 2. Time Restrictions 3. Web Site Exceptions 4. Blocking Effects 5. URL Keywords 6. Advanced 7. Password/Email 9. K9 Update (চিত্রঃ ০৮) লাল রঙ চিহ্নিত ।

চিত্রঃ ০৮

১ম ধাপঃ Web Categories to Block চিত্রঃ ০৮

এখানে Web Categories to Block এ ৬টি লেভেলে বিভক্ত করা আছে তা হল High, Default, Moderate, Minimal, Monitor ও Custom আছে। প্রথম চারটি চার রকমের নিয়ন্ত্রণ আরোপ করে। আর পঞ্চমটি (Monitor) কোনো নিয়ন্ত্রণ কিছু করে না, তবে সব রকম ওয়েব এ্যাক্সেস মনিটর করে। ওয়েব এ্যাক্সেস মনিটরের রিপোর্ট View Internet Activites (চিত্রঃ ৭ এর নীল রঙ চিহ্নিত)– এখানে ক্লিক দেখতে পারবেন ।

চিত্রঃ ৯

সফটঅয়ারটি প্রথম অবস্হায় Monitor লেভেলে থাকে । শেষটি Custom Lavel (চিত্রঃ ৯) যা থেকে আপনার ইচ্ছেমত ওয়েব এ্যাক্সেসের উপর বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারবেন ।

চিত্রঃ ১০

 ২য় ধাপঃ Time Restrictions চিত্রঃ ১০
‘Time restriction’ সিলেক্ট করে সময়ভিত্তিক ইন্টারনেট এ্যাক্সেস নিয়ন্ত্রণ করা যাবে
এখানে তিনটি অপশন আছে আর তা হল  1.Unrestricted, 2.Night Guard, 3.Custom.
১.    Unrestricted Unrestricted  সিলেক্ট করলে সবসময় ইন্টারনেট এ্যাক্সেস করা যাবে। তবে পূর্বে সিলেক্টকৃত ক্যাটাগরীর ওয়েবসাইট ব্লক করা বহাল থাকবে। নতুন অবস্হায় এটা Default থাকে ।
২.    Night Guard : Night Guard দিয়ে প্রত্যেক রাতের যেকোন নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করে সব রকম ইন্টারনেট এ্যাক্সেস বন্ধ করে দিতে পারবেন ।
৩.    Custom: Custom দিয়ে সাপ্তাহিক নির্ধারিত যে কোন দিনের বা রাতের সময় নির্ধারণ করে সব রকম ইন্টারনেট এ্যাক্সেস করা থেকে বিরত রাখতে পারবেন ।

 

চিত্রঃ ১১

৩য় ধাপঃ Web Site Exceptions চিত্রঃ ১১
Web site exceptions হল Web Categories to Block এ আপনি যে কোনো ক্যাটাগরী ব্লক করার পর সে ক্যাটাগরীর কোন সাইটকে Always Allow এর ঘরে সাইটটির ঠিকানা লিখে ‘Add to list’ এ যোগ করুন তাহলে দেখা যাবে ঐ ক্যাটাগরী সব সাইট ব্লক সত্বেও Add to list-এর সাইটগুলোতে এ্যাক্সেস করা যাচ্ছে । আর কোনো Unrestricted Categories সাইটগুলোর নির্দিষ্ট সাইট আলাদা ভাবে ব্লক করার জন্য ‘Always block’ এ তা লিখে ‘Add to list’ এ ক্লিক করুন, তা ব্লক হয়ে যাবে।

চিত্রঃ ১২

৪র্থ ধাপঃ Blocking Effects চিত্রঃ ১২
এখানে তিনটি অপশন আছে আর তা হল 1. Bark When Blocked 2. Show admin options 3. Enable Time out
1. Bark When Blocked: ‘Bark when blocked’ ক্লিক করলে কোনো ব্লক সাইটে প্রবেশ করতে চাইলে আওয়াজ হবে। ফলে আপনি অন্য রুমে থাকলেও আওয়াজ শুনে বুঝতে পারবেন যে আপনার নিষেধাজ্ঞা আরোপিত ব্যাক্তিটি কোনো ব্লকড সাইট এ্যাক্সেস করতে চাচ্ছিল।
2. Show admin options: ‘Show admin options’ এ ক্লিক করলে কোনো ব্লক সাইট ভিজিট করতে চাইলে তাতে কিছু ‘এ্যাডমিন অপশন’ দেখানো হবে। যেমন, পাসওয়ার্ড দেয়া সাপেক্ষে সাময়িকভাবে সাইটটিতে প্রবেশ করা ইত্যাদি ।

3. Enable Time out: এই অপশনটি Enable করা মানে আমও গেল ছালাও গেলর মত অবস্হা । যেমনঃ একটি নিদিষ্ট সময়ে নিদিষ্ট সংখ্যক ব্লক সাইট খোলার চেষ্টা করা হলে একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্য পুরো ইন্টারনেট এ্যাক্সেস ব্লক হয়ে যাবে । যেমনঃ If there are 5 blocked pages within 30 min deny web access for 2 hours সেট করে দেওয়া মানে ৩০ মিনিটে কেউ যদি ৫টি ব্লক সাইট খোলার চেষ্টা করে, তাহলে পরবর্তী দুই ঘন্টার জন্য সব রকম ইন্টারনেট এ্যাক্সেস বন্ধ হয়ে যাবে ।

চিত্রঃ ১৩

৫র্ম ধাপঃ  URL Keywords: চিত্রঃ ১৩

‘URL keywords’ এ ক্লিক করে সাইট ব্লক করার জন্য আরো কিছু কী ওয়ার্ড যোগ করা যাবে। যেমন, আপনি চাচ্ছেন ‘sex’ সংক্রান্ত সকল সাইট ব্লক করতে  । Web Categories to Block অপশনে আপনি এই ক্যাটাগরী ব্লক করেছেন, কিন্তু এতে কিছু অন্যন্য ভাষার সাইট আনব্লক থেকে যাচ্ছে যেমনঃ কিছু বাংলিশ সাইট । তাহলে আপনি এখানে সেসব শব্দ যোগ করে নিতে পারেন। উদাহরণস্বরুপ আপনি URL Keywords এ ‘Deshi Girl’ লিখে add করে দিলে এ নামে যত সাইট থাকবে, বা এই কী ওয়ার্ডযুক্ত যত সাইট থাকবে, সব ব্লক হয়ে যাবে।

চিত্রঃ ১৪

৬ষ্ঠ ধাপঃ Advanced চিত্রঃ ১৪

Advanced  এ আপনি আরো কিছু বিষয় মডিফাই করতে পারেন। Force safe search ও Block unsafe search-এ টিক দিয়ে সার্চ ইঞ্জিনগুলোকে Safe Search রেজাল্ট দেখাতে বাধ্য করতে পারেন। ফলে সার্চ ইঞ্জিনে কোনো  অনুমোদিত শব্দ লিখে সার্চ করলেও সার্চ ইঞ্জিন তাকে অনুমোদিত শব্দগুলোর  রেজাল্ট দেখাবে না। ‘Filter secure traffic’ ব্যবহার করে https সিকিউর কানেকশনের ট্রাফিকেও নিয়ন্ত্রণ আরোপ করা যাবে।

চিত্রঃ ১৫

৭র্ম ধাপঃ Password/Email চিত্রঃ ১৫
এডমিন পার্সওয়াড ও মেইল সংক্রান্ত । প্রয়োজনবোধে আপনি আপনার পার্সওয়াড ও ইমেইল ঠিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন Password/Email অপশন থেকে ।

৮র্ম ধাপঃ K9 Update
সফটঅয়ারটির আপডেট সংক্রান্ত নোটিশ এখানে পাবেন । এছাড়া রয়েছে প্রোগ্রামটি ভার্সন নং ।

আরো পোস্ট দেখুন

comments