ত্বকের ফাটা দাগ দূর করার খুব সহজ ৩টি কার্যকরী পদ্ধতি

MIM

ওজন বেড়ে যাওয়ায় ত্বকে দেখা দেয় ফাটা দাগ। আবার বাড়তি ওজন কমিয়ে ফেলার পরও এই ফাটা দাগ যেতে চায় না। যা দেখতে খুবই বিশ্রী লাগে, বিশেষ করে ঘাড়, গলা, পা ও হাতের ফাটা দাগ। গর্ভধারণ পরবর্তী সময়েও পেটে পড়ে স্ট্রেচ মার্ক। কিন্তু বেশ সহজেই এই বিশ্রী ফাটা দাগ থেকে দূরে থাকা সম্ভব। জানতে চান কীভাবে? জেনে নিন খুব সহজ ৩টি পদ্ধতি।

১. অ্যালোভেরার ব্যবহার :

অ্যালোভেরা ত্বকের নানা দাগ দূর করতে বিশেষভাবে কার্যকরী। ত্বকের স্ট্রেচ মার্কও অ্যালোভেরা দূর করে খুব সহজেই।

– অ্যালোভেরার তাজা পাতা নিয়ে এর সবুজ অংশ ফেলে ভেতরের জেল বের করে নিন।

– এই জেল স্ট্রেচ মার্কের উপর ঘষে নিন ১০ মিনিট। ভালো করে ঘুরিয়ে ঘষবেন, এতে ত্বকের নিচের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পাবে।

– প্রতিদিন এই পদ্ধতি ব্যবহার করুন। কিছুদিনের মধ্যেই ঘাড়, গলা, পেট ও দেহের অন্যান্য স্থান হতে ফাটা দাগ বা স্ট্রেচ মার্ক মিলিয়ে যাবে।

২. আমন্ড অয়েলের ব্যবহার :

আমন্ড অয়েল ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে কার্যকরী। যার ফলে স্ট্রেচ মার্ক সহ অন্যান্য দাগ দূর হয় সহজেই।

– আমন্ড অয়েলের সাথে বেসন মিশিয়ে পেস্টের মতো তৈরি করে নিন।

– এই পেস্টটি ত্বকে ভালো করে ম্যাসেজ করুন। দিনে অন্তত ২ বার এই পেস্টটি ম্যাসেজ করে নেবেন। এতে করে স্ট্রেচ মার্ক খুব দ্রুত দূর হয়ে যাবে।

– এই পেস্টটি গর্ভধারণের প্রথম ট্রাইমেস্টার থেকে পেটে ম্যাসেজ করার অভ্যাস করলে স্ট্রেচ মার্ক তৈরিই হবে না।

৩. ভিটামিন ক্যাপস্যুলের ব্যবহার :

ত্বকের ক্ষতিপূরণের ক্ষেত্রে ভিটামিন ক্যাপস্যুলের ব্যবহার অনেক বেশি উপকারী। এবং এর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নেই।

– ২-৩ টি ভিটামিন এ এবং ই ক্যাপস্যুল একসাথে ভেঙে মিশিয়ে নিন ভালো করে।

– এবার এই মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে ম্যাসেজ করতে থাকুন যতক্ষণ না পুরোটা মিশ্রন ত্বকে মিশে যায়।

– কিছুদিনের মধ্যেই ফাটা দাগ বা স্ট্রেচমার্ক দূর হয়ে যাবে।

সূত্রঃ ইন্টারনেট

আরো পোস্ট দেখুন

comments