তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে সহজ এবং কার্যকর কিছু টিপস

তৈলাক্ত ত্বক

#কখনোই দিনে দুইবারের বেশি মুখ ধোয়া উচিত নয়। সকালে একবার এবং রাতে একবার মুখ ধুলে ত্বক সবচেয়ে ভাল থাকে।কারন অতিরিক্ত মুখ ধুলে ত্বক ত্বকের ন্যাচারাল ময়েশ্চারাইজার হারায় এবং এতে করে আরও বেশি পরিমানে তেল নিঃসরণ করে। তবে বাইরে থেকে আসার পর এবং যদি ব্যায়াম বা কোনধরনের শারীরিক পরিশ্রমের ফলে অতিরিক্ত ঘাম হয় তবে আর একবার মুখ ধোয়া যেতে পারে।
#ত্বকের অতিরিক্ত তেল পেপার টাওওেল, কটন প্যাড বা টিস্যু পেপার দিয়ে চেপে চেপে মুছে নেন। এতে করে ত্বক দীর্ঘ সময় ফ্রেশ দেখাবে। #বেঞ্জয়েল পারঅক্সাইড, স্যালিসিলিক এসিড, গ্লাইকলিক এসিড অথবা বেটা-হাইড্রক্সি এসিড সমৃদ্ধ ফেইস ক্লিন্সার ব্যবহার করুন। এ উপাদানগুলো বিশেষ করে তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে খুবই উপকারী।
#যেকোনো নতুন ক্লিন্সার ব্যাবহারের ক্ষেত্রে অন্তত ২-৩ সপ্তাহ অপেক্ষা করুন সর্বোচ্চ ফলাফল পাওয়ার জন্য।
#মুখ স্ক্রাব করা থেকে বিরত থাকুন। কারন স্ক্রাবিং ত্বকের তেল নিঃসরণ বাড়িয়ে দেয় বহুগুনে।
#মুখে টোনার ব্যাবহারের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র ত্বকের তৈলাক্ত অংশগুলোতে ব্যাবহার করুন।কারন টোনার শুষ্ক ত্বককে ক্ষতিগ্রস্ত করে। “তৈলাক্ত ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যাবহারের কোন প্রয়োজন নেই” – এটা আমাদের সম্পূর্ণ ভুল একটি ধারনা। তৈলাক্ত ত্বকেও অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যাবহার করতে হবে। তবে ময়েশ্চারাইজার নির্ধারণের ক্ষেত্রে অবশ্যই ওয়াটার বেইসড বা অয়েল ফ্রী ময়েশ্চারাইজার নির্ধারণ করতে হবে।এছাড়া তৈলাক্ত ত্বকে কখনোই ক্রিম ব্যাবহার করা উচিত নয়।
লেখাটি পছন্দ হইলে শেয়ার করতে ভুলবেন না।
নিয়মিত সুন্দর সুন্দর টিপস পেতে আমাদের ফেসবুক পেজ এ অ্যাক্টিভ থাকুন।

আরো পোস্ট দেখুন

comments