ই-কমার্সে ভ্যাট প্রত্যাহার হচ্ছে জাতীয় সংসদে অর্থ মন্ত্রীর নতুন প্রস্তাব

Online-Shopping-Amazon-Google

নতুন অর্থবছরে ই-কমার্সে আরোপিত ভ্যাট সম্পূর্ণ প্রত্যাহার করা হচ্ছে।

সোমবার সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এ খাতের বর্তমান অবস্থাকে শৈশব সময় উল্লেখ করে আরোপিত ৪ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহারের প্রস্তাব করেন।

গত ৪ জুন বাজেট ঘোষণায় ই-কমার্সকে প্রথমবারের মতো সুনির্দিষ্ট করে ভ্যাটের আওতায় আনার ঘোষণা দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী। সেখানে ২০১৫-১৬ অর্থবছরে ই-কমার্সে মূল্য সংযোজন করের (ভ্যাট) হার ৪ শতাংশ করার প্রস্তাব রাখা হয়েছিলো।

এতোদিন এই ই-কমার্স খাতকে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সেবার সাথেই ৪ দশমিক ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট দিতে হতো।

বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির(বিসিএস) সাবেক সভাপতি, তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জাব্বার টেকশহরডটকমকে বলেন, আমরা সরকারকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি যে ই-কমার্স  খাতে এই ভ্যাট সুফল বয়ে আনবে না। সরকার জনস্বার্থে, ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রয়োজনকে গুরুত্ব দিয়েছে। ই-কমার্স খাতের ভ্যাট তুলে নেয়ার ফলে খাতটি সমৃদ্ধ হতে বড় একটি বাধা কাটলো।

বেসিসের সাবেক সভাপতি ও ই-কমার্স অ্যালায়েন্সের আহবায়ক ফাহিম মাশরুর টেকশহরডটকমকে বলেন, সরকারের এই সিদ্ধান্তে আমরা খুশি। ভ্যাট আরোপের ফলে ই-কমার্স খাতটি বিপর্যয়ের হাত থেকে রক্ষা পেলো।

বেসিস সভাপতি, এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক এবং দেশের সুপরিচিত ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান এখনিডটকমের প্রধান নির্বাহী ও সফটওয়্যার প্রতিষ্ঠান বেঞ্চমার্ক ই-জেনারেশন লিমিটেডের চেয়্যারম্যান শামীম আহসান বলেন, ই-কমার্সে ভ্যাট শূণ্য করার দাবি ছিলো আমাদের। সেখানে বাজেটে যখন  সুনির্দিষ্ট করে ভ্যাট বসানো হলো তখন বেশ দুশ্চিন্তাতেই পড়েছিলাম আমরা।

শামীম বলেন, বেসিসের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিয়ে সরকারের সাথে বারবার কথা বলা হয়েছে। স্মারকলিপি দেয়া, সংবাদ সম্মেলনসহ বিভিন্ন ভাবে আমরা দাবি তুলেছি। অবশেষে সরকারকে সাধুবাদ জানাই ভ্যাট প্রত্যাহারের এই সিদ্ধান্তের জন্য।

source: Techsohor

আরো পোস্ট দেখুন

comments